Download LoveSpot Theme!
Search
Home » Category » Life Story
বিয়ের রাতে ভূতের ভয় Posted by , 1 year ago, 51 Views

বিয়ে করে বউ আনা মানে নিজের
ঘরে খাল কেটে কুমির আনা এইটা
আম্মু-আব্বু কে এতবার করে বুঝাইলাম
কাজের কাজের হাতির ডিম হল।
বিয়া তারা আমাকে করাবেই
এমনকি মেয়ে দেখা ও বিয়ের
তারিখ ঠিক করাও শেষ।মেয়ের নাম
বৃষ্টি।বিয়ের আগে মানুষ স্বাধীন
থাকে আর বিয়ের পর হয়ে যায়
পরাধীন।অতীরের কোন বন্ধুর সাথে
দেখা হলে বলবে দুস্ত তুই কি জীবত
নাকি বিবাহিত।বিয়া যখন করতেই
হবে শেষ বয়েসে করলেই হল কিন্তু
সেটা তো আর আম্মু-আব্বু মানবে না।।
দেখতে দেখতে সেই বাঁশ খাওয়া
রাত চলে আসল মানে বাসর রাত বন্ধু-
বান্ধব অনেক কু-বুদ্ধি দিল এক কানে
দিয়া ঢুকল আর আরেক কান দিয়ে
বের হল।বিয়া যখন করে ফেলছি
বাসর তো করতেই হবে।রুমের ভিতর
ঢুকলাম..বউ এসে সালাম করল যাই হউক
জীবন সার্থক ডিজিটাল যুগেও বউ
আমারে সালাম করছে তাও পায়ে
ধরে।।
.
আমি-আরে আরে কর কি?
বৃষ্টি-কেন সালাম করেছি।
আমি-ও আচ্ছা।
বৃষ্টি-আপনার সাথে আমার কিছু কথা
আছে।
-কি কথা(মনে মনে বুঝে পেলেচি
অন্যের প্রেমিকারে বিয়া করে
পেলেচি আমার তো কপালে শেষ
মেশ বাঁশ)
-আসলে আমাকে আপনার সাথে
জোর করে বিয়া দেয়া হয়েছে।
-আমাকেও জোর করে বিয়া
করানো হয়েছে।
-কি?
-না মানে কিছু না।তো আমি কি
করতে পারি।
-আমি আপনার সাথে ঘর করতে পারব
না।
-ও আচ্ছা এই কথা,তাহলে বিয়া
করছেন কেন?
-বললাম না জোর করে।
-ও,তাহলে এখন ঘুমান সকালে বাকী
কথা শুনব রাত অনেক হয়ে গেছে।
(এটাই আমার কপাল)
-আপনি কোথায় ঘুমাবেন।
-কেন বিছানায়।
-তাহলে আমি কোথায় ঘুমাব।
-বিছানায় আপনি ঘুমান না বুঝি।
-আমি আপনার সাথে ঘুমাব না।
-ও আচ্ছা বুঝেছি আপনি ঘুমান আমি
যাচ্ছি।
.
বলেই রুম থেকে বেরিয়ে ছাদে
চলে আসলাম এসে রেলিং এ ধরে
ভাবতাছি বিয়া করলাম মাগার বউ
পাইলাম না।ইশ ভূল করে ফেলেছি
বৃষ্টির আগের প্রেমিকের নাম
জানা দরকার ছিল।তবে একটা কথা
বলতেই হয় বৃষ্টি কে বিয়ের
শাড়িতে সত্যি অসাধারণ ছিল ওর
সাথে বিয়ের আগে আমার তেমন
কথা হয় নাই হয়ত বলতে চেয়েছিল
বাট পারেনাই।ওর দোষ দিয়েও
লাভ নেই।
.
হঠাৎ আমার চোখ গেল ছাদের
দরজার দিকে দেখলাম লাল কি
যেন আমার দিকে চেয়ে আছে
চাঁদের আলো আছে বাট বুঝা
যাচ্ছে না সেটা কি?আমি এমনি
একটু ভীতু টাইপের তার উপর রাত ৩টা
হয়ে গেছে।দিলাম একটা চিৎকার
বাঁচাও বলে কিন্তু মুখ দিয়ে
আওয়াজ বের হচ্ছে না হঠাৎ
দেখলাম লাল জিনিস টা আমার
দিকে আসছে আমার অবস্থা তো
কাহিল ছাইড়া দে বাপ কান্দিয়ে
বাঁচি এই রকম হয়েছে ঘামতে
ঘামতে পুরাই ভিজে গেছিল।হঠাৎ
আমার মুখ দিয়ে বের হয়ে গেছে..
.
-ভাই রে আমারে ছেড়ে দেন আমি
জানিনা যে আপনি এইখানে
আছেন।
-ওই চুপ কর।
-মাফ করিয়া দেন প্লিজ ভাই।মাত্র
আজ বিয়ে করছি আর আজই আমার শেষ
রাত আপনি করিয়ে দিয়েন না।
-এই কি হয়েছে তোমার।চোখ খুলো।
-(বিষয় কি ভূত আমার সাথে কথা
বলছে তাও আবার নারী কণ্ঠে)চোখ
খুলে দেখি আমার সামনে একটা
মেয়ে দাঁড়ানো চাঁদের আলোয়
অল্প অল্প ভাবে বুঝা যাচ্ছে।
-কি হয়েছে।
-এবার সিওর হলাম আসলে এইটা ভূত
না আমার বিয়ে করা বউ বৃষ্টি বাট
সে ছাদে কেন আসছে।তুমি ছাদে
কেন জিজ্ঞাস করলাম।
-আরে ঘুম আসছিল না তাই আসলাম।
-এত্ত বড় একটা বিছানা দিয়া
আসলাম আর ঘুম আসছে না এখানে
আমাকে ভয় দেখাতে আসছ(রাগে
কথা গুলো বললাম)
-হিহিহি তুমি ভয় পেয়েছ।
-না আমি তো বিনুদুন পেয়েছি
অল্পের জন্য ছাদ থেকে লাফ দেই
নাই।
-হাহাহা।
-আচ্ছা তোমাকে তো জিজ্ঞাস
করা হয়নি তোমার বয় ফ্রেন্ড এর নাম
কি?
-কিসের বয় ফ্রেন্ড।
-কেন যার সাথে তমার রিলেশন
ছিল কিন্তু তোমার পরিবার
তোমাকে জোর করে বিয়ে
দিয়েছে।
-আরে গাধা স্বামী ওই টা
তোমাকে এমনি মজা করে
বলেছিলাম।আসলে আমার সাথে
কারো রিলেশন নাই থাকলে তো
বিয়ের আগেই ভেগে যেতাম
হিহিহি।
-একদম হাসবা না।সিরিয়াসলি বল।
এবার সত্যিই মেয়েটা যেন কেঁদে
দিয়েছে…
-সরি আসলে আমি বুঝতে পারিনি
তুমি এতটা সিরিয়াসলি ভাবে
নিবে বিশ্বাস কর আমার সাথে
কারো রিলেশন ছিল না।
-তাহলে কাঁদছ কেন?
-জানিনা
.
বলে অন্য দিকে মুখ ঘুরিয়ে নিল।
আমি ও আর কি করি এই রকম অল্প
চাঁদের আলোয় যদি বউ কে জড়িয়ে
না ধরি কেমন কেমন লাগে না তাই
জড়িয়ে ধরলাম পিছন থেকে।
ফিলিংস টা অসাধারণ….

Leave a Reply

Topics

Blogroll